Monday, 8 July 2013

রোযাঃ দীর্ঘায়ু ও রোগমুক্তির একটি বৈজ্ঞানিক উপায় / Roza (fasting): a scientific way of long life and curing of diseases

রোযাঃ দীর্ঘায়ু ও রোগমুক্তির একটি বৈজ্ঞানিক উপায়
মোঃ ফজলুল হক, প্রভাষক, প্রাণিবিদ্যা বিভাগ, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়
আমরা রোযা রাখি ধর্মীয় আদেশে কিন্তু বৈজ্ঞানিক যুক্তিতেও রোযা রাখার রয়েছে অনেক উপকারিতা। তবে এ-লেখায় শুধু রোযা কীভাবে Autophagy(অটোফাজি)নামক একটি কোষীয় প্রক্রিয়ার মাধ্যমে আমাদের রোগমুক্তি ও সুস্বাস্থ্য রক্ষার জন্য কাজ করে সে বিষয়ের আলোচনা করবো আমরা জানি যে অসংখ্য কোষ দিয়ে আমাদের দেহ গঠিত যেকোনো প্রতিকুল অবস্থায় বেঁচে থাকার জন্য এসব কোষে চালু হয় বিভিন্ন ধরনের প্রক্রিয়া। এমনি একটি প্রক্রিয়া হচ্ছে Autophagy যার মাধ্যমে কোষ তার ক্ষতিগ্রস্ত অঙ্গাণু, অস্বাভাবিক প্রোটিন, টিকে থাকা অন্তঃকোষীয় অণুজীব ইত্যাদিকে হজম করে অ্যামাইনো-এসিড ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় উপাদানে পরিণত করে যেন তা ব্যবহার করে তারা প্রতিকূল অবস্থায় বেঁচে থাকতে পারে। এভাবে প্রতিকূল অবস্থায় বেঁচে থাকার জন্য কোষে Autophagy চালু হলেও এর মাধ্যমে কোষ থেকে ক্ষতিকর ও রোগ-সৃষ্টিকারী বিভিন্ন উপাদানসমূহ দূর হয়। বিভিন্ন দৈহিক প্রতিকুলতা যেমন অনাহার, অক্সিজেনের অভাব, অস্বাভাবিক তাপমাত্রা ইত্যাদির কারণে দেহে Autophagy চালু হয়। আমরা রোযা অবস্থায় যে সময়ের জন্য অনাহারে থাকি তা দেহে Autophagy চালুর জন্য যথেষ্ট। আর সাম্প্রতিক বিভিন্ন গবেষণা থেকে জানা যায় যে দীর্ঘায়ু ও বিভিন্ন রোগ নিরাময়ের জন্য Autophagy গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। যেসব রোগ নিরাময়ে Autophagy গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে সেগুলো হল Parkinson’s, Alzheimer’s, এবং Huntington’s নামক neurodegenerative diseages, ক্যান্সার, হৃদরোগ, যকৃতরোগ যেমন ফ্যাটি লিভার, Type-II Diabetes, Crohn's disease, Myopathy এবং ব্যাকটেরিয়া ও ভাইরাসজনিত কিছু রোগ এভাবে রোযা আমাদের অনেক রোগ থেকে মুক্ত থাকতে এবং বয়স বৃদ্ধি রোধ করতে সাহায্য করে। আর বিজ্ঞানের এই দৃষ্টিকোণ থেকে তাদের জন্যও রয়েছে সুংবাদ যারা ইফতারের সময় বেশি খেয়ে ফেলেন আর ভাবেন যে রোযা থেকে তার কোন উপাকারই হল না কারন, Autophagy-এর মাধ্যমে রোযা আমাদের দেহকে পরিস্কার করে এমন অনেক ক্ষতিকর উপাদানসমুহ থেকে যাদের সৃষ্টির সাথে অধিক খাদ্য গ্রহনের কোন সম্পর্ক নাই তাই এটা বলা যায় যে ক্ষতিকর কিছু থেকে দেহ আর মন উভয়কে পরিস্কার করার জন্য রোযাই হচ্ছে উত্তম ইবাদত। 



Fasting: a scientific way of long life and curing of diseases
We do fasting for obeying to the religious order. But, there are a lot of scientific evidences on the benefits of fasting. However, in this writing I just focus on the role of fasting on induction of autophagy, a cellular process reported for increasing life space and for curing various diseases. We know that our body is made up of many cells. In any adverse conditions, different types of cellular process are started in these cells for their survival. One of such processes is autophagy by which damaged organelles, abnormal protein aggregates, intracellular pathogens are degraded by lysosomal degradation into amino acid and other material so that these materials can be reused by cell for their survival in adverse condition.  However, autophagy starts as a survival strategy for supplying energy and essential materials in adverse condition but for doing these it clear the cells from harmful components and pathogens. Various kind of stress such starvation or fasting, hypoxia, abnormal temperature can induce autophagy in human body. The period of fasting maintained by Muslim is enough for inducing autophagy in body. Interestingly, recent researches reveal that autophagy play an important role on increasing life-span and on treatment of various diseases such as neurodegenerative diseages- Parkinson's, Alzheimer's and Huntington's ; cancer; heart disease; liver disease-fatty liver,  Type-II Diabetes, Crohn's disease, myopathy and some bacterial and viral diseases. Thus, fasting helps us to get rid of various types of diseases. In the perspective of autophagy, there is good news for those who eat lot of foods at the time of ifter and think that they are not getting any benefit from the fasting. Because, creation of harmful cellular materials which are degraded by autophagy is not related to over eating. Therefore, it can be said that fasting is the best religious and scientific way of cleaning both body and mind.     
 

Pageviews last month